চাঁদপুর মতলব দক্ষিণে পিতার মাতার প্রতি কষ্টকে গুরুত্ব দিতে গিয়ে,অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী,পাকের রূমে মেজের কাঠি দিয়ে আগুন ধরাতে গিয়ে গুরুতর আহত। সকলের প্রতি সহযোগীতা কামনা।

স্বাধীন বাংলা নিউজ টিভি স্টাফ রিপোর্টার মোঃতপছিল হাছানঃ
মানুষ মানুষের জন্য  চাঁদপুর মতলব দক্ষিণ পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডে ভাঙ্গার পাড়ের প্রধানিয়া জাহাঙ্গির প্রধানিয়া বড় মেয়ে, মিসেস বৈশাখী আক্তার মিম (১৪)বছর মতলব বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী জশ্চ পরিক্ষাত্রি ছিলো, গত ৩০,১০,২০১৯,ইং তারিখে, দুপুর ১০  ঘটিকার সময় পাক করতে গিয়ে মেজের কাঠি দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে হঠাৎ করে তাহার শরীরের থাকার উনার মধ্যে আগুন লেগে তাহার হাতে পায়ের পুরো শরীরের মধ্যে অগ্নিকাণ্ড ঘটনায় খুবই ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছে।
মতলব  দক্ষিণ পুরসভার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রীর মিসেস বৈশাখী আক্তার মিমের পিতা, জাহাঙ্গীর প্রধানের  দের বছর দরে সরক দূর্গটনায় আহত হয়ে বিছানা মধ্যে অসুস্থ পড়ে আছে। দীর্ঘদিন ধরে জাহাঙ্গীররে ইস্ত্রি অন্য মানুষের বাসায় গিয়ে কাজকর্ম করে সন্তানের এবং তার মামীকে খানা ও চিকিৎসা চালিয়ে আচ্ছে,  অন্যদিকে পরিবারের এ-র একমাএ উপার্যনকারী জাহাঙ্গির আলোম চিকিৎসার অভাবে ছিলো, এখন তাহার বড়ো সন্তান গ্যাসের চুলার মেজের কাঠি দিয়ে আগুন ধরাতে সময় ফায়ার হোয়ে শরীরের থাকার উনার মধ্যে আগুন লেগে যায়, ওই সময় তাঁহার ডাক চিৎকারে শুনে বাড়ির মধ্যে সকল মানুষ এসে তাৎক্ষনিক ভাবে মত দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য ক্লিনিক জরুরী বিভাগে নিয়ে ভর্তি করানো হলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়, পরবর্তিতে রঘুবীর খুবই অবস্থা গুরুতর দেখে ডাক্তার মাহবুবুর রহমান ঢাকা মেডিকেল কলেজে রেফার করা হয়।
মানুষ মানুষের জন্য বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইচুতে চিকিৎসার খরচের অভাবে মৃতুর সাথে যুদ্ধ করছে ।মায়ের নাম সেফালি । খালা:- সেলিনাঃ বিকাশ ০১৬২১৯৫৫৮৫২, এবং কেউ যদি যাচাই করতে চান ইমুতে কল দিতে পারেন।সরাসরি যোগাযোগ করে মানবতার হাত বাড়িয়ে দেওয়া জন্য সকল পবাসী চাকরি জৈবিক কাছে  অনুরোধ রহিল।কত টাকাই তো নষ্ট করি সকলে এই দানে যেমন আল্লাহকে খুশি করানো সম্ভব তেমনি আমাদের ই বোন কারো হয়ত মেয়ের বয়সী ডাক্তার বলেছেন সঠিক চিকিৎসার মাধ্যেমে সুস্থ করা সম্ভব তাই অনেক খরচের ব্যাপার, তাই আমরাই পারি আবার ও আলোর মূখ দেখাতে এ-ই স্কুল পরুয়া মেয়ের জীবন ফিরিয়ে আসতে পারে ।সকলে মানতবতার হাত বাড়িয়ে দিন অন্যদের কেউ বলি সরাসরি যোগাযোগ করতে এবং সাহয্য হাত বাড়িয়ে দিতে সকলের প্রতি আহ্বান।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.